বৃহস্পতিবার, ১৩ জুন ২০২৪, ০৭:৪৭ অপরাহ্ন
শিরোনামঃ
কালিগঞ্জে জোরপূর্বক জমি দখল ও ভাঙচুরের অভিযোগ উঠেছে দেশবাসীকে ঈদের শুভেচ্ছা জানালেন,বিশিষ্ট ব্যবসায়ী মো.সাইফুল ইসলাম চট্টগ্রামে ঝুট গুদামে আগুন শিবরাম আদর্শ পাবলিক স্কুলে ফল উৎসব পালিত রামপালে ঘূর্ণিঝড়ে ক্ষতিগ্রস্ত পরিবারের মাঝে কেন্দ্রীয় বিএনপি’র অর্থ সহায়তা প্রদান  গোপালগঞ্জ মুকসুদপুর উপজেলা চেয়ারম্যান হিসেবে দ্বিতীয়বার শপথ নিলেন কাবির মিয়া বাংলাদেশ মফস্বল সাংবাদিক সোসাইটির রাজশাহী বিভাগীয় কমিটি ঘোষণা নন্দী ভাঙ্গনের প্রতিযোগীতায় চট্টগ্রাম  গাজীপুরে শহীদ ক্যাডেট স্কুল এন্ড কলেজে ফল উৎসব ২০২৪ অনুষ্ঠিত পবিত্র ঈদুল- আযহার ঈদ শুভেচ্ছা জানিয়েছেন ৭নং ওয়ার্ড আওয়ামীলীগ সভাপতি’মো.ইমানুর মিয়া

গাজীপুরে স্কুল শিক্ষিকা খুন, গ্রেফতার -১

মোঃ মোখলেছুর রহমান জয়, গাজীপুর প্রতিনিধিঃ
  • আপডেট সময় মঙ্গলবার, ২৮ মে, ২০২৪
  • ৬৯ বার পঠিত

 

মোঃমোখলেছুর রহমান জয়, গাজীপুর প্রতিনিধিঃ

গাজীপুর মহানগরের দক্ষিণ সালনা এলাকায় ধারালো ছুরিকাঘাতে তিন মাসের গর্ভবতী এক স্কুল শিক্ষিকা খুন হয়েছেন। এসময় আহত হয়েছেন সাবিনা (২২) নামে আরও এক নারী। এ ঘটনায় একজনকে আটক করা হয়েছে।

রোববার বিকালে এ ঘটনা ঘটে বলে জানিয়েছেন গাজীপুর সদর থানার ওসি সৈয়দ রাফিউল করিম। পুলিশ ঘটনাস্থল থেকে রক্তমাখা ছুরিটি উদ্ধার করেছে।

নিহত রোমানা আক্তার (২৮), বরিশাল সদর থানার নয়ানী চরকাওয়া এলাকার আব্দুল মনসুরের মেয়ে ও একই জেলার বন্দর থানার রায়পুরা গ্রামের হাসান হাওলাদারের স্ত্রী।

নিহত রোমানা দক্ষিণ সালনা এলাকার মুন লাইট প্রি-ক্যাটেড এন্ড হাইস্কুলে শিক্ষকতা করতেন, আর তার স্বামী হলেন একই এলাকার জেরিকো নামের এক পোশাক কারখানার কর্মী।

আহত সাবিনা হলেন- শেরপুর সদরের ধুপেরচর এলাকার হামিদুল ইসলামের মেয়ে ও আয়নাল হকের স্ত্রী।
আটক কায়েস রানা (২৭) হলেন সিরাজগঞ্জের সলঙ্গা এলাকার আব্দুল খালেকের ছেলে। কায়েস স্থানীয় এমবিএম নামের পোশাক কারখানায় কর্মী।

পুলিশ ও স্থানীয় সূত্রে জানা গেছে, গাজীপুর মহানগরের দক্ষিণ সালনা এলাকায় মন্ত্রী বাড়ি রোডের স্থানীয় গোলাম মোস্তফার বাড়িতে ভাড়ায় বসবাস করতেন হাসান হাওলাদার দম্পতি। পূর্ব শত্রুতার জেরে রোববার বিকালে পাশের ভাড়াটিয়া হামিদুলের মেয়ে সাবিনার সঙ্গে ঝগড়া হয় অপর ভাড়াটিয়া কায়েস রানার।
তাদের ঝগড়া ও ধস্তাধস্তি দেখে তা থামাতে যান রোমানা আক্তার নামের অপর ভাড়াটিয়া। এক পর্যায়ে কায়েস রানা এলোপাথাড়ি ছুরিকাঘাত শুরু করলে অতিরিক্ত রক্তক্ষরণে ঘটনাস্থলেই রোমানা আক্তার মারা যান। এসময় রোমানাকে রক্ষা করতে গিয়ে গুরুতর আহত হন সাবিনা নামের এক ভাড়াটিয়া।

তাকে উদ্ধার করে শহীদ তাজউদ্দীন আহমদ মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালের ভর্তি করা হয়েছে। এ সময় ঘাতক কায়েস রানাকে স্থানীয় লোকজন আটক করে পুলিশে সোপর্দ করে।

স্থানীয় বাসিন্দা মো. শাহ আলম জানান, নিহত রোমানা তিন মাসের গর্ভবতী ছিলেন। দক্ষিণ সালনা এলাকার মুন লাইট প্রি-ক্যাটেড এন্ড হাইস্কুলে শিক্ষকতা করতেন।

একই বাড়ির ভাড়াটে অবিবাহিত কায়েসের সঙ্গে ময়লা ফেলানো নিয়ে সাবিনার পূর্ব শত্রুতা সৃষ্টি হয়েছিল। এছাড়াও এ খুনে অন্য কোন কারণ ছিল কি-না সে ব্যাপারে তিনি কোন মন্তব্য করতে রাজি হননি।

গাজীপুর সদর থানার ওসি সৈয়দ রাফিউল করিম বলেন, কী কারণে ঝগড়া বা রোমানার মৃত্যু হয়েছে তা এখনো জানা যায়নি। এ ঘটনায় কায়েস রানাকে আটক করে থানায় নিয়ে আসা হয়েছে।

পুলিশ ঘটনাস্থল থেকে রক্তমাখা ছুরিটি উদ্ধার করেছে। পুলিশের ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তারা ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছেন। মরদেহের ময়নাতদন্তসহ পুরো বিষয়টি তদন্ত করে দেখা হচ্ছে। এ ব্যাপারে প্রয়োজনীয় আইনগত ব্যবস্থা প্রক্রিয়াধীণ।

সাংবাদ পড়ুন ও শেয়ার করুন

আরো জনপ্রিয় সংবাদ

© All rights reserved © 2022 Sumoyersonlap.com

Design & Development BY Hostitbd.Com

কপি করা নিষিদ্ধ ও দণ্ডনীয় অপরাধ।